সবজি ভেবে ৪০ গ্রাম স্বর্ণ খেল ষাঁড়!

বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পর স্বর্ণের গয়না খুলে রান্নাঘরে একটি পাত্রে রেখেছিলেন বাড়ির মালিকের স্ত্রী ও পুত্রবধূ। পরে ভুল করে সেই পাত্রেই সবজির উচ্ছিষ্ট ফেলা হয়। সেগুলো আবার খেতে দেওয়া হয় এক ষাঁড়কে। আর এভাবেই ৪০ গ্রাম স্বর্ণের গয়না চলে যায় ষাঁড়ের পেটে।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সিরসা জেলার জনকরাজ নামের এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, কয়েকদিন আগে জনকরাজের বাড়ির কাছে একটি ষাঁড় এলে সবজির খোসা ভর্তি পাত্রটি তাকে খাবার হিসেবে দেওয়া হয়। আর সেগুলো খেতে গিয়ে স্বর্ণও গিলে ফেলে ষাঁড়টি।

গয়নার কথা মনে পড়ার পর খুঁজতে গেলে রান্নাঘরের দরজার কাছে একটি কানের দুল পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে বাড়ির সিসিটিভি ফুটেজ দেখে নিশ্চিত হওয়া যায় যে, স্বর্ণ রাখা পাত্রেই উচ্ছিষ্ট ফেলে তা ষাঁড়টিকে খেতে দেওয়া হয়।

স্বর্ণ গিলে খাওয়া বেওয়ারিশ ষাড়টিকে খুঁজতে লেগে যায় পাঁচ ঘণ্টা। ষাড়টিকে খুঁজে পাওয়ার পর থেকেই সেটিকে প্রচুর পরিমাণে খাইয়ে চলছে পরিবারটি। কারণ ষাঁড়টি মল ত্যাগ করলে গিলে ফেলা স্বর্ণ পাওয়া যেতে পারে। কিন্তু বেয়ারা ষাঁড়টি গত তিনদিন মলত্যাগই করছে না। এতে বিপাকে পড়েছে পরিবারটি।

এ ঘটনার পর জেলার লাজপত রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণী বিজ্ঞানের ডিরেক্টর রবিন্দর শর্মা বলেন, ‘আগে এক্স-রে করে দেখতে হবে ষাঁড়ের পেটে স্বর্ণ আছে কি না। তারপর অপারেশন করে তা উদ্ধার করতে হবে।’

রবিন্দর শর্মা আরও বলেন, ‘গোবরের মাধ্যমেও স্বর্ণ উদ্ধার করা যায়, তবে তা জটিল প্রক্রিয়া।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*